ম্যাজিকাল ২৮ -ভেট ৫০০ মিলি ইনজেকশন
800.00৳
প্রাপ্যতা: In Stock
ডেলিভারি সুবিধা
ঠিকানা
ঠিকানা নেই

শিপিং খরচ
আলোচনা সাপেক্ষ
প্রদানোত্তর পরিশোধ
হ্যা
বিনামূল্যে পরিবহন
নেই

সেবা সমূহ
খাঁটি পণ্য
আসল পণ্য
পণ্য বিবরণ

ম্যাজিক্যাল ২৮® ভেট
ক্যালসিয়াম বোরোগøুকোনেট ও ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ইনজেকশন

বর্ণনা
ম্যাজিক্যাল ২৮® ইনজেকশন-এ রয়েছে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও ম্যাগনেসিয়াম যা মিল্ক ফিভার বা দুধজ্বর এবং ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও ম্যাগনেসিয়াম এর অভাবজনিত রোগের চিকিৎসায় গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া, ঘোড়া, কুকুর এবং বিড়ালের জন্য ব্যবহৃত হয়।
উপাদান
ম্যাজিক্যাল ২৮® ইনজেকশন-এ রয়েছে ক্যালসিয়াম গøুকোনেট ২৮.০০% {ক্যালসিয়াম গøুকোনেট (ইনজেকশন গ্রেড) বি.পি. হিসেবে}, ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ৯.০০% এবং বরিক এসিড বি.পি. ৫.৭৫%।
কার্যাবলী
ক্যালসিয়ামঃ ক্যালসিয়াম একটি গুরুত্বপূর্ণ আয়ন যা হাড় ও দাঁতের প্রধান উপাদান এবং হৃৎপিন্ডের স্বাভাবিক স্পন্দন, রক্ত জমাট বাঁধা এবং স্নায়ু ও বিপাকীয় কার্যাবলীর জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান। দুগ্ধবতী গাভীতে প্রসবের সময় এবং পরে যখন ওলান গ্রšি’র নিঃসরণ দ্বিগুণের চেয়ে বেশি হয় এবং গাভীর ক্যালসিয়ামের চাহিদা তৈরি হয়, তখন স্বল্পমেয়াদী হাইপোক্যালসেমিয়া প্রায় সবসময় দেখা যায়। এই অতিরিক্ত চাহিদা অন্ত্র থেকে শোষণ বা হাড় থেকে ক্যালসিয়ামের যোগান দ্বারা রক্তে সবসময় ভারসাম্য রক্ষিত হয় না এবং পরিণতিতে রক্তে ক্যালসিয়াম আয়নের ঘনত্ব কমে যায়। হাইপোক্যালসেমিয়া, হাইপোফসফেটেমিয়া এবং কখনও একইসাথে হাইপোম্যাগনেসেমিয়া এর কারণে গাভী এবং ভেড়ার হাইপোক্যালসেমিক রেকাম্বেন্সি (দুধজ্বর, পেরি পারচুরেন্ট পেরেসিস) দেখা দেয়। শরীরে রক্তের উপাদানগুলোর তাৎক্ষণিক ভারসাম্যহীনতা সমাধানের জন্য ক্যালসিয়াম দ্বারা চিকিৎসা করানো হয়।
সকল প্রাণিতে ক্যালসিয়াম ইনজেকশন শিরায় দেয়া হলে দ্রæত সমাধান পাওয়া যায়। রুমিন্যান্ট প্রাণিতে
ক্যালসিয়াম ইনজেকশন শিরায় ধীরে ধীরে প্রয়োগ করতে হয়। ক্যালসিয়াম ইনজেকশন চামড়ার নিচে দুই ভাগে ভাগ করে দুই ¯’ানে কাঁধের পিছনে প্রয়োগ করা যেতে পারে।
ম্যাগনেসিয়ামঃ ম্যাগনেসিয়াম একটি গুরুত্বপূর্ণ ইলেকট্রোলাইট যা অনেক এনজাইমের কো-ফ্যাক্টর হিসাবে, ফসফেট ট্রান্সফার, মাংশপেশীর সংকোচন এবং নিউরোমাস্কুলার ট্রান্সমিশন এ ভূমিকা রাখে। রুমিন্যান্ট প্রাণিতে ম্যাগনেসিয়ামের অভাব (গ্রাস স্ট্যাগার) দেখা দিতে পারে যদি এদের ব্যবহৃত ঘন চারণভ‚মিতে নাইট্রোজেন এবং পটাশ সমৃদ্ধ সার প্রয়োগ করা হয়। শীতকালীন প্রতিক‚ল আবহাওয়ায় হাইপোম্যাগনেসেমিয়া দেখা দিতে পারে। হাইপোম্যাগনেসেমিয়ার কারণে বাছুরের হঠাৎ মৃত্যু হতে পারে। বাছুরকে সাধারণত দুধ দেওয়ার প্রথম দিকে গাভীর তীব্র ম্যাগনেসিয়ামের অভাব দেখা যায়। আক্রান্ত গরু এদিক সেদিক ঘোরাফেরা করে ও উত্তেজিত হয় এবং সাথে সাথে পা ও ঘাড়ে ধনুষ্টংকার রোগগত খিঁচুনি দিয়ে ভেঙ্গে পড়ে। দীর্ঘ¯’ায়ী ম্যাগনেসিয়ামের অভাবের ফলে ক্ষিদে এবং দুধ উৎপাদন কমে যায়। গরুর পালে দুধ ছাড়ানো গাভীর প্রায়ই দুধজ্বর (হাইপোক্যালসেমিয়া) এর উ”চ প্রকোপ দেখা যায়। হাইপোম্যাগনেসেমিক টিটেনি (গ্রাস টিটেনি/ল্যাকটেশন টিটেনি) একটি বিপাকীয় রোগ যার কারণ হ”েছ হাইপোম্যাগনেসেমিয়া, জটিল হাইপোগøাইসেমিয়া এবং কখনও জটিল হাইপোফসফেটেমিয়া। ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস সমন্বিত সলিউশন দ্বারা চিকিৎসা প্রায়ই কার্যকর এবং হাইপোম্যাগনেসেমিয়া এর ক্ষেত্রে ইনজেকশনের মাধ্যমে চিকিৎসা একটি অ¯’ায়ী সমাধান এবং এর
পাশাপাশি খাবারের মাধ্যমে এর সরবরাহ শুরু করতে হবে।
ফসফরাসঃ ফসফরাস প্রোটিন এবং কার্বোহাইড্রেট বিপাকের একটি মূল উপাদান এবং হাড়ের একটি গাঠনিক অংশ। হাইপোফসফেটেমিয়া পারচুরেন্ট পেরেসিস এর সাথে দেখা দিতে পারে কিš‘ প্রতিকারে সুনির্দিষ্ট সাপ্লিমেন্ট এর দরকার হয় না। গাভীর তীব্র হিমোলাইসিস এর পর পোস্ট পারচুরেন্ট হেমোগেøাবিনুরিয়া এর সাথে ফসফরাস এর অভাব দেখা দিতে পারে। সাধারণত, ফসফরাস এর অভাবে দীর্ঘমেয়াদী হাইপোফসফেটেমিয়া দেখা দেয়, যার পরিণতিতে হাড়ে ত্রæটিবিচ্যুতি, খোঁড়া হওয়া এবং দুধ কমে যেতে পারে। পারচুরেন্ট পেরেসিসে আক্রান্ত প্রাণী ক্যালসিয়াম দ্বারা চিকিৎসা করানোর পরও সু¯’ না হলে ফসফরাসযুক্ত উপাদান ব্যবহৃত হতে পারে। রুমিন্যান্ট প্রাণিতে দীর্ঘমেয়াদী হাইপোফসফেটেমিয়া দেখা দিতে পারে।
নির্দেশনা ও ব্যবহার
ম্যাজিক্যাল ২৮® ইনজেকশন হাইপোক্যালসেমিয়া, হাইপোম্যাগনেসেমিয়া, হাইপোফসফেটেমিয়া এবং নিম্নোক্ত অব¯’ার জন্যও নির্দেশিতঃ
১. মিল্ক ফিভার (পারচুরেন্ট পেরেসিস)
২. মিল্ক ফিভার কমপ্লেক্স (পেরি পারচুরেন্ট পেরেসিস)
৩. ল্যাকটেশন টিটেনি
৪. গর্ভাব¯’ার শেষের দিকে বা দুধদানের প্রথম দিকে হাইপোক্যালসেমিয়া
৫. স্টারনাল রিকাম্বেন্সী
৬. হাইপোম্যাগনেসেমিক টিটেনি (গ্রাস টিটেনি)

৭. ট্রানজিট পেরেসিস/ ট্রানজিট টিটেনি
৮. মাসল ট্রেমর এবং স্টিফ গেইট
৯. কিটোসিস
১০.কৃমিজনিত সংক্রমণের ফলে সাধারণ দূর্বলতা
মাত্রা ও প্রয়োগবিধি
ম্যাজিক্যাল ২৮® ইনজেকশন চামড়ার নিচে এবং/অথবা শিরাপথের মাধ্যমে (ধীরে ধীরে শিরাপথের জন্য) দিতেহবে। ম্যাজিক্যাল ২৮® ইনজেকশন হল একটি সুপারস্যাচুরেটেড সল্যুশন যেটাতে তলানি পরতে পারে। যদি তলানি পড়ে, দ্রবনটি স্ব”ছ না হওয়া পর্যন্ত বোতলটিকে প্রায় ৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় দুই ঘন্টার জন্য গরম পানিতে ডুবিয়ে রেখে ও মাঝে মাঝে ঝাঁকুনি দিয়ে তলানি দ্রবীভ‚ত করে সল্যুশনটি স্ব”ছ করুন। তারপর দ্রবণটি ব্যবহারের আগে প্রাণির শরীরের স্বাভাবিক তাপমাত্রা পর্যন্ত ঠান্ডা হতে দিন। উপরোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করার পরেও যদি তলানি থেকে যায় তাহলে সল্যুশনটি ব্যবহার করা উচিত নয়।
গরু/ মহিষ/ ছাগল/ ভেড়া/ বাছুর
শিরায় (ধীরগতিতে) এবং/ অথবা চামড়ার নিচেঃ ০.৫- ১.০ মি.লি. প্রতি কেজি ওজনের জন্য।
অর্ধেক মাত্রার ইনজেকশন শিরায় ধীরগতিতে (১০-২০ মিনিট) এবং বাকি বা পুরো মাত্রা চামড়ার নিচে দেয়া যেতে পারে। অব¯’ার উন্নতি না হলে কয়েক ঘন্টা পর পুনরায় দেয়া যেতে পারে।
মুখে খাওয়ানোর জন্যঃ ১০ মি.লি. প্রতি লিটার পানিতে মিশিয়ে খাওয়ানো যেতে পারে।
চিকিৎসার সময়কালঃ পরপর ২-৩ দিন।
অথবা রেজিস্টার্ড ভেটেরিনারি চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার্য।
প্রত্যাহারকাল
মাংস ঃ ০ দিন, দুধ ঃ ০ দিন।
প্রতিনির্দেশনা
হাইপারম্যাগনেসেমিক প্রাণির জন্য প্রতিনির্দেশিত। টক্সেমিক প্রাণির জন্য এই ঔষধ শিরায় দেয়া যাবে না।
সতর্কতা
শিরায় ইনজেকশন দেয়া যেহেতু একটি সাধারণ প্রয়োগক্ষেত্র, সেক্ষেত্রে চিকিৎসারত প্রাণির হৃৎপিন্ডের কার্যকারিতা, বিশেষত হৃৎপিন্ডের স্পন্দন পর্যবেক্ষণ করা উচিত। ক্যালসিয়াম কার্ডিওটক্সিক, তাই ক্যালসিয়াম ধারণকারী সলিউশন শিরায় ধীরে ধীরে প্রয়োগ করতে হবে। যদি হৃৎপিন্ডের স্পন্দন তীব্র অনিয়মতান্ত্রিক হয় (ব্রাডিকার্ডিয়া দেখা দেয়) সেক্ষেত্রে প্রয়োগ বন্ধ করতে হবে যতক্ষণ না স্বাভাবিক স্পন্দন ফিরে আসে।
পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া
প্রয়োগের সময় হৃৎপিন্ড অথবা শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত উপসর্গ দেখা দিতে পারে। এরকম দেখা দিলে স্বাভাবিক অব¯’ায় ফিরিয়ে আনতে ইনজেকশন এর মাত্রা কমিয়ে বা বন্ধ করে দিতে হবে।
সংরক্ষণ
আলো ও আর্দ্রতা থেকে দূরে, ৩০ ক্কসে. তাপমাত্রায় অথবা এর নিচে রাখুন। শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।
সরবরাহ
ম্যাজিক্যাল ২৮® আই.ভি./এস.সি. ইনজেকশন (৫০০ মি.লি.): প্রত্যেক কার্টুনের ৫০০ মি.লি. এর বোতলে রয়েছে ক্যালসিয়াম বোরোগøুকোনেট ও ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ইনজেকশন। প্রত্যেক ১০০ মি.লি. এ আছে ইনজেকশন এর জন্য ক্যালসিয়াম গøুকোনেট বি.পি. যা ২৮.০০ গ্রাম ক্যালসিয়াম গøুকোনেট এর সমতুল্য, ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ৯.০০ গ্রাম এবং বরিক এসিড বি.পি. ৫.৭৫ গ্রাম।
ম্যাজিক্যাল ২৮® আই.ভি./এস.সি. ইনজেকশন (২৫০ মি.লি.): প্রত্যেক কার্টুনের ২৫০ মি.লি. এর বোতলে রয়েছে ক্যালসিয়াম বোরোগøুকোনেট ও ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ইনজেকশন। প্রত্যেক ১০০ মি.লি. এ আছে ইনজেকশন এর জন্য ক্যালসিয়াম গøুকোনেট বি.পি. যা ২৮.০০ গ্রাম ক্যালসিয়াম গøুকোনেট এর সমতুল্য, ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ৯.০০ গ্রাম এবং বরিক এসিড বি.পি. ৫.৭৫ গ্রাম।
ম্যাজিক্যাল ২৮® আই.ভি./এস.সি. ইনজেকশন (১০০ মি.লি.): প্রত্যেক কার্টুনের ১০০ মি.লি. এর বোতলে রয়েছে ক্যালসিয়াম বোরোগøুকোনেট ও ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ইনজেকশন। প্রত্যেক ১০০ মি.লি. এ আছে ইনজেকশন এর জন্য ক্যালসিয়াম গøুকোনেট বি.পি. যা ২৮.০০ গ্রাম ক্যালসিয়াম গøুকোনেট এর সমতুল্য, ম্যাগনেসিয়াম হাইপোফসফাইট হেক্সাহাইড্রেট ৯.০০ গ্রাম এবং বরিক এসিড বি.পি. ৫.৭৫ গ্রাম।

পণ্যের সবিস্তার বিবরণী
রেটিং এবং রিভিউ

/5

0 ratings
0
0
0
0
0

No review yet